৪২ রানেই শেষ রাঙ্গামাটির ইনিংস!

757
Advertisement

: দীপ্ত হান্নান : ইয়াং টাইগার্স অনুর্ধ্ব-১৮ ক্রিকেটে ৪২ রানেই ইনিংস শেষ হয়ে যায় রাঙ্গামাটি জেলা দলের। মঙ্গলবার প্রতিযোগিতার চট্টগ্রাম মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্স ভেন্যুতে নিজেদের ২য় ম্যাচে কক্সবাজারের বিরুদ্ধে এত অল্প রানে গুটিয়ে যায় রাঙ্গামাটি। ম্যাচে কক্সবাজার ৭ উইকেটের ব্যবধানে জয় পায়। জাতীয় ক্রিকেটে জেলার এই ফল বিপর্যয় জেলায় গত একবছর ক্রিকেট না হওয়া ও গত ক্রিকেট কমিটির ব্যর্থতা বলে মনে করছেন ক্রীড়া সংশ্লিষ্টরা।

টস জিতে ম্যাচে রাঙ্গামাটিকে ব্যাটিং এ পাঠায় কক্সবাজার। প্রতিপক্ষের বোলারদের তোপের মুখে রাঙ্গামাটির ব্যাটসম্যানরা ক্রিজে দাড়াতেই পারেনি এদিন। ব্যাটসম্যানদের নিয়মিত আসা-যাওয়ায় ২৩ ওভারে মাত্র ৪২ রানে গুটিয়ে যায় রাঙ্গামাটির ইনিংস। রুপায়ন বড়ুয়া রাঙ্গামাটির হয়ে সর্বোচ্চ ১৬ রান করেন। রাঙ্গামাটির ইনিংসে ১৮ রান আসে অতিরিক্ত থেকে। কক্সবাজারের শফিক ৩টি, নুরুল আমিন ও প্রশান্ত ২টি করে উইকেট নেন। জবাবে ওপেনিং ব্যাটসম্যান রায়হান কবিরের ২১ রানের উপর ভর করে ১০.৪ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে জয়ে লক্ষ্যে পৌছে যায় কক্সবাজার।

প্রতিযোগিতায় টানা দুই ম্যাচ পরাজয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে রাঙ্গামাটি। আগামী ২৬ অক্টোবর তারা গ্রুপের শেষ ম্যাচ অর্থাৎ নিয়ম রক্ষার ম্যাচে মৌলভী বাজারের বিরুদ্ধে খেলবে। এদিকে রাঙ্গামাটির এমন ভরাডুবির জন্য ক্রিকেট কমিটিকেই দুষছেন ক্রীড়া সংশ্লিষ্টরা।

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে আহবায়ক আবু সাদাৎ মোঃ সায়েম এর নেতৃত্বে ক্রিকেট কমিটি পদত্যাগ করলে জেলার ক্রিকেটাঙ্গনে একটি শুন্যতা তৈরি হয়। পরবর্তীতে ক্রিকেটের হাল ধরতে সহ সভাপতি প্রীতম রায় হিরোকে আহবায়ক ও সদস্য রমজান আলীকে সদস্য সচিব করে একটি কমিটি করে দেয়া হয়। কিন্তু দায়িত্ব নেয়ার পর ক্রিকেট কমিটি একবছর সময় হাতে পেলেও, ক্রিকেট মাঠে নামাতে সম্পুর্ণ রুপে ব্যর্থ হয়েছেন। গত একবছর ধরে ক্রিকেট না হওয়ায় এর প্রভাব পড়েছে  খেলোয়াড়দের উপর। যার ফল স্বরুপ, জাতীয় ক্রিকেটে জেলার এই ফল বিপর্যয়।