খেলোয়াড়ের বয়স চুরি ঠেকাতে সফটওয়্যার!

29
Advertisement

: স্পোর্টস ডেস্ক : বিভিন্ন সুবিধা পেতে বয়স কমানোটাকে এ উপমহাদেশের সংস্কৃতি বলা চলে। ক্রীড়াক্ষেত্রে এই প্রবণতা একটু বেশিই তীব্র। বয়সভিত্তিক খেলাগুলোতে সুবিধা পেতে অনেকেই জন্মসনদে বয়স কমিয়ে রাখেন। একটু বেশি বয়সে কম বয়সীদের বিপক্ষে খেলে ভালো পারফর্ম করে এগিয়ে যাওয়াটাই থাকে লক্ষ্য, কিন্তু এতে প্রতিপক্ষের সন্দেহের মুখে পড়ে হারাতে হয় ভাবমূর্তি। তাই এবার বয়স চুরি ঠেকাতে সাহায্য করবে সফটওয়্যার।

ক্রিকেটারদের বয়স চুরি ঠেকাতে ভারতের ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই এতদিন টিডব্লিউ ৩’ পদ্ধতি ব্যবহার করে আসছিল। তবে এবার দেশটির ক্রিকেট বোর্ড ঝুঁকছে আধুনিক সফটওয়্যার পদ্ধতির দিকে। ‘বোন এক্সপার্ট’ নামের সফটওয়্যারের মাধ্যমে স্বল্প খরচে কম সময়ের মধ্যে খেলোয়াড়দের প্রকৃত বয়স জানা যাবে বলে বলা হচ্ছে।

ক্রিকেটারদের বয়স বের করতে বর্তমানে প্রচলিত টি ডব্লিউ ৩’ পদ্ধতিতে বাঁহাত ও কব্জির এক্স-রে করানো হয়। এতে প্রকৃত ফলাফল পেতে সময় লেগে যায় তিন থেকে চারদিন। এতে খরচের অঙ্কটাও খুব কম নয়। প্রতিটি পরীক্ষার ফল খরচ করতে হয় ২ হাজার ৪০০ রূপি। কিন্তু এই নতুন ‘বোন এক্সপার্ট’ সফটওয়্যারের মাধ্যমে মাত্র কয়েক মিনিটে জানা যাবে বয়স। আর এতে খরচ হবে মাত্র ২৮৮ রূপি।

বিসিসিআই এর বিবৃতিতে পুরনো পদ্ধতি সম্পর্কে বলা হয়, ‘বিসিসিআইয়ের একজন স্বাধীন পর্যবেক্ষকের সামনে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের নির্ধারিত এক্স-রে সেন্টারে পরীক্ষা করা হয়। এরপর বিসিসিআই এভিপি বিভাগে এই সকল রিপোর্ট পাঠায়। এভিপি বিভাগ সব তথ্য সংগ্রহ করে বিসিসিআইয়ের স্বাধীন একজন রেডিওলজিস্টের কাছে পাঠায়, তিনি হাড়ের বয়স বের করেন।’

বোন এক্সপার্ট নামের এই সফটওয়্যারে এতো জটিলতা নেই। পরীক্ষানিরীক্ষা শুরুর কয়েক মিনিটের মধ্যেই প্রকৃত বয়স জানিয়ে দেবে এই আধুনিক প্রযুক্তি। তবে বিসিসিআই এর কার্যকরিতা সম্পর্কে নিশ্চিত হতে এটিকে আরও যাচাইবাছাই করে নিতে চায়। তাই পুরনো পদ্ধতির পাশাপাশি আপাতত এটির পরীক্ষামূলক ব্যবহার শুরু করা হবে।

বিসিসিআইয়ের সে বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ‘আমরা পরিক্ষামূলকভাবে কিছু এক্স-রে ডেটাব্যাংকে দিয়ে সন্তোষজনক ফল পেয়েছি। আমরা আরও অনেক এক্স-রে (৩৮০০টিরও বেশি) ব্যবহার করে পুরোপুরি সন্তুষ্টি লাভ করতে চাই। সব অ্যাসোসিয়েশনেই এই প্রক্রিয়ার আওতায় থাকবে। প্রচলিত পদ্ধতির পাশাপাশি আপাতত আমরা এই সফটওয়্যারের পরীক্ষামূলক ব্যবহার শুরু করতে চাই।’