জেলা ক্রীড়া সংস্থায় ডিসির প্রতিনিধি হলেন যারা

150
Advertisement

: স্পোর্টস রিপোর্টার : আসন্ন রাঙামাটি পার্বত্য জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচনে সংস্থার সভাপতি ও জেলা প্রশাসকের মনোনয়ন পেয়েছেন পাঁচ ক্রীড়াবিদ ও সংগঠক। ক্রীড়া সংস্থার গঠনতন্ত্রের ধারা ৮ এর ১১ অনুযায়ী জেলার ক্রীড়ার বর্তমান সংগঠক ও সাবেক ক্রীড়াবিদদের মধ্য থেকে যাচাই-বাছাই করে জেলা প্রশাসক পাঁচজন প্রতিনিধির নাম চুড়ান্ত করেন।

তারা হলেন বরুন বিকাশ দেওয়ান, ওয়াশিংটন চাকমা, মো. শাহ আলম, কিংশুক চাকমা ও পথিকৃত রায় কোরক। এর আগে ২০১৮-২০২২ মেয়াদে জেলা প্রশাসকের মনোনিত প্রতিনিধি ছিলেন হাজী মোঃ কামাল উদ্দিন, সুনীল কান্তি দে, মোঃ শাহ আলম, ওয়াশিংটন চাকমা ও রতন বড়ুয়া।

বরুন বিকাশ দেওয়ান : জাতীয় দলের সাবেক এই ফুটবলার চলতি বছরে পেয়েছেন জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার। খেলেছেন ঢাকার আবাহনী, মোহামেডান, মুক্তিযোদ্ধাসহ নামীদামি ক্লাবে। খেলা থেকে অবসর নিয়ে দায়িত্বে ছিলেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার বিভিন্ন পদে। সংস্থার চলতি মেয়াদে আছেন সহ সভাপতির পদে।

ওয়াশিংটন চাকমা : সাবেক ফুটবলার ও ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড়। একজন আপাদস্তক ক্রীড়া সংগঠক। জেলায় প্রতিভাবান ফুটবলার তৈরির লক্ষ্যে চালু করেছেন রাঙামাটি ডিস্ট্রিক ফুটবল একাডেমী। তিনি এই একাডেমীর সভাপতি।

মোঃ শাহ আলম : সাবেক ফুটবলার ও ক্রীড়া সংগঠক। বিভিন্ন মেয়াদে জেলা ক্রীড়া সংস্থার বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। ক্রীড়া পরিচিতির কারণে তিনি ছিলেন রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের ক্রীড়া সম্পাদক। বর্তমানে তিনি ঐতিহ্যবাহী ক্লাব প্রভাতী স্পোটিং ক্লাবের সভাপতি।

কিংশুক চাকমা : ঢাকার মাঠে দাপিয়ে বেড়ানো আরেক ফুটবলার। খেলেছেন বয়স ভিত্তিক জাতীয় ফুটবল দলে। তিনিও ছিলেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার দায়িত্বে। জেলার ফুটবল জাগরণ ও উন্নয়নে রাঙামাটি ডিস্ট্রিক ফুটবল একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

পথিকৃত রায় কোরক : জেলা ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক। এবার জেলা প্রশাসকের মনোনিত তালিকায় তিনিই প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে মুল্যায়ন পাওয়া ক্রীড়াবিদ। খেলোয়াড়ী জীবনে জেলার প্রথমসারির ক্লাব ক্রিকেটার্স, প্রগতিসহ বিভিন্ন ক্লাবে খেলেছেন।